স্মিথের চড় যে রোগকে সামনে নিয়ে এসেছে

বিশ্বব্যাপী এবারের অস্কারের আলোচনার বিষয় কোনো মুভি কিংবা তারকা নয়। বরং অস্কার নিয়ে সারা বিশ্ব জুড়ে এখন আলোচনা চলছে কমেডিয়ান ক্রিস রককে উইল স্মিথের চড় মারা নিয়ে৷ স্ত্রী জাডা পিংকেটকে ক্রিস রকের কৌতুক মেনে নিতে পারেননি স্মিথ।

সে মেনে নিতে না পারা থেকেই মঞ্চ গিয়ে চড় বসিয়ে দেন ক্রিস রককে৷ তারপর থেকে বিশ্ব এখন দুইভাগে বিভক্ত৷ কেউ উইল স্মিথের চড় মারার পক্ষে, কেউ বিপক্ষে। কিন্তু এই চড় মারা ছাপিয়ে উঠে এসেছে জাডা পিংকেটের অ্যালোপেশিয়া নামক দুরারোগ্য এক ব্যাধিকে বহন করার সংগ্রাম।

দুরারোগ্য এই ব্যাধিতে আক্রান্ত হলে মাথার চুল পড়ে যায়। ২০১৮ সালে জাডার এই রোগ ধরা পড়ে। তখন তিনি জনসম্মুখে তার চ্যাট শো রেড টেবিল টকে এই রোগের কথা প্রথম জানান৷

স্মিথের চড় যে রোগকে সামনে নিয়ে এসেছে
কামানো মাথায় উইল স্মিথের স্ত্রী জাডা পিংকেট। ছবি: সিএনএন

সে সময় তার প্রথম অভিজ্ঞতার কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, এটি আমার জীবনের সেই সময়ের মধ্যে একটি ছিল, যেখানে আমি সত্যিকার অর্থে ভয়ে কাঁপছিলাম৷ তাই আমি আমার চুল কাটা শুরু করি। আর এখন কাটতেই আছি।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে এই অভিনেত্রীকে প্রায়শই ছোট চুল, পাগড়ি বা মাথা মোড়ানো স্টাইলে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশ নিতে দেখা যায়।

স্মিথের চড় যে রোগকে সামনে নিয়ে এসেছে
স্ত্রীকে নিয়ে কৌতুক করায় ক্রিসকে চড় মারছেন স্মিথ। ছবি: সিএনএন

গত জুলাইয়ে তিনি ইনস্টাগ্রামে প্রথম তার সম্পূর্ণ মাথা কামানো ছবি প্রকাশ করেন।মেয়ে উইলোর সাথে তোলা সেই ছবির ক্যাপশনে লিখেছিলেন, আমাকে উইলো এটা করতে বাধ্য করেছে কারণ এখনই সময় এটি প্রকাশ করার। আমার পঞ্চাশের বছরগুলো এই শেড (কামানো মাথা) দিয়ে ঐশ্বরিকভাবে আলোকিত হতে যাচ্ছে।

নিজের এই দুরারোগ্য রোগ মেনে নিয়ে গত ডিসেম্বরেও জাডা তার কামানো মাথার ছবি প্রকাশ করে লিখেন, আমি আর অ্যালোপেশিয়া বন্ধু হতে যাচ্ছি…পিরিয়ড। এরপর থেকে এই অভিনেত্রীকে এই নতুন লুকেই সব অনুষ্ঠানে দেখা গিয়েছে।

হার্ভার্ড মেডিকেল স্কুলের একটি গবেষণা বলছে, প্রায় এক তৃতীয়াংশ নারী তাদের জীবনে চুল ঝরার সম্মুখীন হন। ২০১৮ সালে প্রকাশিত এমন আরেকটি প্রতিবেদনে বলা হয়,  আমেরিকায় শ্বেতাঙ্গদের তুলনায় কৃষ্ণাঙ্গ এবং হিস্প্যানিক নারীদের অ্যালোপেশিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

/ঋতু

সর্বশেষ

Leave a Reply