আয়-ব্যয় দুইই কমেছে আওয়ামী লীগের


২০১৮ সালের তুলনায় ২০১৯ সালে আওয়ামী লীগের আয়-ব্যয় দুটোই কমেছে।

আজ বুধবার দুপুরে আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ ও দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া আগারগাঁও নির্বাচন কমিশনে আওয়ামী লীগের ২০১৯ সালের আয়-ব্যয়ের হিসাব জমা দেন।

এই হিসাবে দেখা যায় গত বছরের (২০১৯) শেষে আওয়ামী লীগের সর্বমোট অর্থের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৫০ কোটি ৩৭ লাখ ৪৩ হাজার ৫৯৩ টাকা। নগদ আছে পাঁচ লাখ ১৩ হাজার ৭১৭ টাকা এবং ব্যাংকে জমা আছে ৫০ কোটি ৩২ লাখ ২৯ হাজার ৮৭৬ টাকা।

দাখিল করা হিসাব মতে, আওয়ামী লীগের ২০১৮ সালে আয় হয়েছিল ২৪ কোটি ২৩ লাখ ৪২ হাজার ৭০৭ টাকা। আর ব্যয় হয়েছিল ১৮ কোটি ৮৭ লাখ ৮০ হাজার ৫৫৭ টাকা। আর ২০১৯ সালে দলটির আয় হয়েছে সর্বমোট ২১ কোটি ২ লাখ ৪১ হাজার ৩৩০ টাকা, ব্যয় হয়েছে ৮ কোটি ২১ লাখ ১ হাজার ৫৭৫ টাকা। সুতরাং আগের বছরের চেয়ে গত বছর দলটির আয় ও ব্যয় দুটোই কমেছে।

২০১৯ সালে দলটির আয়ের উল্লেখযোগ্য খাতগুলো হচ্ছে, নমিনেশন ফরম বিক্রি বাবদ ১২ কোটি ৩২ লাখ ৩০ হাজার টাকা। জাতীয় সম্মেলন বাবদ প্রাপ্ত ৩ কোটি ২ লাখ ৫৫ হাজার ৮০০ টাকা, ব্যাংক লভ্যাংশ বাবদ ২ কোটি ৩৩ লাখ ৭৫ হাজার ২২৩ টাকা। আর সংসদ সদস্যদের প্রদেয় চাঁদা বাবদ ১ কোটি ৭ লাখ ৬৪ হাজার টাকা

আর দাখিল করা হিসাব অনুযায়ী ২০১৯ সালে আওয়ামী লীগের সর্বমোট ব্যায়ের খাত গুলোর ৩ কোটি ৪৩ লাখ ১৪ হাজার ৮০০ টাকা হচ্ছে জাতীয় সম্মেলন বাবদ। কর্মচারীদের বেতন, বোনাস, আপ্যায়ন ও অন্যান্য খরচ বাবদ ১ কোটি ১৩ লাখ ৭৭ হাজার ৭০০ টাকা। বিভিন্ন অনুষ্ঠান বাবদ ব্যয় ১ কোটি ১৮ লাখ ১৮ হাজার ৮৬৫ টাকা এবং সভাপতির কার্যালয়ে ভাড়া ৫৫ লাখ টাকা হিসাবে দেখানো হয়েছে।

সর্বশেষ

Leave a Reply