বঙ্গবন্ধুকে ‘বিশ্ববন্ধু’ হিসেবেও বিবেচনা করা উচিত: অমর্ত্য সেন

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ‘বিশ্ববন্ধু’ হিসেবেও বর্ণনা করা উচিত বলে মন্তব্য করেছেন নোবেল বিজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন।

তিনি বলেন, সবার অংশগ্রহণে সমান সুযোগের মাধ্যমে রাষ্ট্রগঠনে বঙ্গবন্ধুর যে দর্শন ছিল তা সমাজ এবং পৃথিবীর বিভিন্ন রাষ্ট্রের জন্য প্রাসঙ্গিক এবং জরুরি।

বুধবার ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশের রুপকল্প’ শিরোনামে লন্ডন স্কুল অব ইকোনমিকস ( এলএসই) সাউথ এশিয়া সেন্টার আয়োজিত এক ভার্চুয়াল সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে এলএসইর সাউথ এশিয়া সেন্টার ও যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশ হাইকমিশনের যৌথ উদ্যোগে এ সভা আয়োজিত হয়।

অমর্ত্য সেন বলেন, বঙ্গবন্ধুর সেকুলারিজম ধারণার মানে মানুষের ধর্মীয় স্বাধীনতা থাকবে না, এমন নয়। বরং তা ছিল ধর্মের রাজনৈতিক ব্যবহার না করার।

অমর্ত্য সেন বলেন, ‘খুনিরা বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গেছে, তার আদর্শ ও চিন্তাকে নয়।’

এলএসই পরিচালক অধ্যাপক মিনোশ শফিকের সঞ্চালনায় সভায় আলোচক হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) চেয়ারপারসন অর্থনীতিবিদ রেহমান সোবহান, যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাঈদা মুনা তাসনিম এবং এলএসইর সাউথ এশিয়া সেন্টারের পরিচালক অধ্যাপক আল নূর ভিমানি।

অধ্যাপক রেহমান সোবহান বলেন, ‘আমাদেরকে এমন সমাজ প্রতিষ্ঠা করতে হবে যেখানে সংখ্যাগরিষ্ঠ জনগণই হবে সম্পদ তৈরি এবং উপকার ভোগী হওয়ার ক্ষেত্রে অংশীদার ও শাসক। এটা ছিল বঙ্গবন্ধুর মূল এজেন্ডা।

সর্বশেষ

Leave a Reply