ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটে আগুন

ভারতের ঔষধ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সেরাম ইনস্টিটিউটের নির্মানাধীন একটি ফ্যাক্টরিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।আজ বিকেল ৩টা নাগাদ মহারাষ্ট্র রাজ্যের পুনে শহরের বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে অবস্থিত মঞ্জরি নামের একটি ভবনে এই অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত হয়।

এর কিছুক্ষণ পরই সেখানে দমকল বাহিনীর দশটি ইউনিট আগুন নেভানোর কাজ করছে।

ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটে আগুন
সেরাম ইনস্টিটিউটের জানিয়েছে, এ ঘটনায় ‘কোভিশিল্ড’ উৎপাদনে কোন সমস্যা হবে না।

সেরামের টিকা উৎপাদনের মূল কারখানা থেকে বেশখানিকটা দূরেই নির্মানাধীন এই ভবনের(মঞ্জরি) অবস্থান। এখানে বিসিজি টিকা উৎপাদনের কাজ চলছিল।

পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি সংখ্যক টিকা উৎপাদনকারী কোম্পানি এই সেরাম ইনস্টিটিউট। টিকা উৎপাদনের ক্ষমতা আরও বাড়ানোর লক্ষ্যেই এই নতুন উৎপাদন কেন্দ্রটিসহ (মঞ্জরী) বেশ কয়েকটি নতুন ভবন গড়ে তোলা হচ্ছিল এই ইনস্টিটিউটে।

তবে এই অগ্নিকান্ডের পর সেরামে অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্রোজেনেকার সাথে চুক্তিকৃত কোভিশিল্ডের উৎপাদন নিয়ে দেশটিতে প্রশ্ন উঠেছে।

এ বিষয়ে সেরামের কার্যনির্বাহী অধিকর্তা সুরেশ যাদব হিন্দুস্তান টাইমসকে জানিয়েছেন, যেখানে আগুন লেগেছে, সেখানে টিবির বিসিজি টিকা উৎপাদন সংক্রান্ত কাজ চলছিল। অগ্নিকাণ্ডের জায়গা থেকে বেশ অনেকটা দূরে কোভিশিল্ড তৈরি করা হয়। সেখানেই মজুত রাখা হয় অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় এবং ব্রিটিশ-সুইডিশ সংস্থা অ্যাস্ট্রোজেনেকার করোনাভাইরাস টিকা। ফলে কোভিশিল্ডে কোনও ক্ষতির সম্ভাবনা নেই।

উল্লেখ্য, সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে উৎপাদিত ৩ কোটি করোনা ভ্যাকসিন ‘কোভিশিল্ড’ কিনে আনছে বাংলাদেশ।যার মধ্যে আজই ভারত সরকারের উপহার হিসেবে ২০ লক্ষ ডোজ বাংলাদেশে এসে পৌঁছেছে।

/জাহিদ

সর্বশেষ

Leave a Reply