Monday, January 25, 2021

মিয়ানমার একজন রোহিঙ্গাকেও ফেরত নেয়নি- জাতিসংঘে প্রধানমন্ত্রী

এমসিজে নিউজ ডেস্ক

গণহত্যা ও নির্যাতনের শিকার হয়ে মায়ানমার থেকে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া একজন রোহিঙ্গাকেও মিয়ানমার ফিরিয়ে নেয়নি বলে জাতিসংঘে দেয়া ভাষণে উল্লেখ করেছেন গণপ্রজাতন্ত্রী  বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

২৬ সেপ্টেম্বর রাতে জাতিসংঘের ৭৫তম সাধারণ অধিবেশনে ভার্চুয়ালি দেয়া বক্তব্যে তিনি রোহিঙ্গা সংকটের সমাধানে বিশ্ববাসীর প্রতি আহ্বান জানান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ ১১ লাখেরও বেশি জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমার নাগরিককে আশ্রয় প্রদান করেছে। তিন বছরের বেশি সময় অতিক্রান্ত হলেও এখন পর্যন্ত মিয়ানমার একজন রোহিঙ্গাকেও ফেরত নেয়নি। ‘এ সমস্যা মিয়ানমারের সৃষ্টি এবং এর সমাধান মিয়ানমারকেই করতে হবে। আমি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে এ ব্যাপারে আরও কার্যকর ভূমিকা গ্রহণের অনুরোধ জানাচ্ছি।’

প্রধানমন্ত্রী ফিলিস্তিনি জনগণের প্রতি সংহতি জানিয়ে বলেন, ‘আমাদের স্বাধীনতার সংগ্রামে বাঙালি জাতি অবর্ণনীয় দুর্দশা, মানবতাবিরোধী অপরাধ ও গণহত্যার মতো জঘন্য অপরাধের শিকার হয়েছে। সেই কষ্টকর অভিজ্ঞতা থেকেই আমরা নিপীড়িত ফিলিস্তিনি জনগণের ন্যায়সঙ্গত দাবির প্রতি সমর্থন দিয়ে আসছি।’

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রনীতির কথা জানিয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন, ‘সকলের সাথে বন্ধুত্ব কারো সাথে বৈরিতা নয়’, এই নীতিবাক্য আমাদের পররাষ্ট্র নীতির মূলমন্ত্র। এ মন্ত্রে উদ্বুদ্ধ হয়ে বাংলাদেশ শান্তি ও নিরাপত্তা রক্ষা এবং শান্তির সংস্কৃতি বিনির্মাণে নিয়মিত অবদান রেখে চলেছে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘শান্তিরক্ষী প্রেরণে বাংলাদেশের অবস্থান এখন শীর্ষে। সংঘাতপ্রবণ দেশসমূহে শান্তি প্রতিষ্ঠা ও শান্তি বজায় রাখতে আমাদের শান্তিরক্ষীগণ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। তাদের সুরক্ষা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের অন্যতম দায়িত্ব।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘শান্তির প্রতি অবিচল থেকে আমরা সন্ত্রাসবাদ ও সহিংস উগ্রবাদের বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি গ্রহণ করেছি। মহামারির ফলে সৃষ্ট ঝুঁকি মোকাবেলায় জাতীয় উদ্যোগের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক সহযোগিতাও অপরিহার্য।’

বিশ্ববাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘পারমাণবিক অস্ত্রমুক্ত পৃথিবী বিনির্মাণে বৈশ্বিক আকাঙ্ক্ষার প্রতি আমাদের সমর্থন অবিচল। সে বিবেচনা থেকে পরমাণু প্রযুক্তির শান্তিপূর্ণ ব্যবহারের বিষয়ে উন্নয়নশীল দেশসমূহের কার্যক্রমকে আমরা জোর সমর্থন জানাই।’

এস/এন

সর্বশেষ

Leave a Reply