Monday, January 25, 2021

সাইকেল চালিয়ে ধরলেন ছিনতাইকারী

ঘটনাটা সোমবার(১০ জানুয়ারি)  দুপুরের, আগ্রাবাদ থেকে নিউ মার্কেট যাচ্ছিলাম। বাস আগ্রাবাদ মোড়ে যাত্রীর অপেক্ষায়।

হুট করে টের পেলাম জানালা দিয়ে কেউ হাত ঢুকিয়ে আমার মোবাইলটা ছিনিয়ে নিয়ে দৌড়! ঘটনার আকস্মিকতা কাটিয়ে আমিও বাস থেকে নেমে তার পেছন পেছন দৌড়াতে থাকি।

এই মুহূর্তে রহমতের ফেরেশতা হয়ে নেমে আসে ঐখানে অবস্থানরত ফুড পান্ডা ও সহজ.কমের কয়েকজন রাইডার ভাই। উনাদের একজন বললেন, ‘ভাইয়া আপনি দৌড়াইয়েন না, আমরা দেখছি।’

আমিও তখন একরকম হাল ছেড়ে দিয়ে পাশের এক দোকানদারের ফোন থেকে আমার ফোনে কল করতে থাকি।

১০-১৫ টা ফোন দেওয়ার পর রাইডার একজন বললেন, ‘ভাই মোবাইল পাওয়া গেছে, সাদিয়া’স কিচেনের সামনে আসেন।’

তারপর রিকশা নিয়ে গেলাম সেখানে। ততক্ষণে বেশ উত্তম মাধ্যম খেয়ে ফেলেছে চোর ব্যাটা। আমারও রাগে তখন গা ফেটে যাচ্ছিলো।

মোবাইলটা আমার অনেক শখের, লোন নিয়ে কেনা। সে লোনের টাকা অনেক কষ্টে শোধ করেছি। এ ঘটনার পর সেসব কষ্টগুলা যেন অসীম শক্তি নিয়ে আমার উপর ভর করলো। আমি ছিনতাইকারী ছেলেটার সামনে গিয়েই দিলাম এক ঘুষি বসিয়ে।

একই সময়ে সেখানে কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশ ডাবলমুড়িং থানার টহল টিমকে ততক্ষণে ম্যাসেজ দিয়ে দিয়েছেন। পুলিশ এলে তাকে তুলে দিলাম পুলিশের হাতে। সাথে আমিও চললাম থানায়৷

থানাতেও রাইডার সালাউদ্দিন ইমন ভাই
বেশ কিছু ডেলিভারি ক্যান্সেল করে আমাকে সঙ্গ দিয়েছেন। আর জীবনে এই প্রথম থানা পুলিশের মুখোমুখি হলাম।

পুলিশ নিয়ে অনেক নেতিবাচক মনোভাব থাকলেও বাস্তবে থানার কর্মকর্তারা পুরোটা সময় জুড়েই অনেক সাহায্য করেছেন। তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা।

বিকাল গড়িয়ে সন্ধ্যা, তারপর রাত নামে, থানার ফরমালিটিজ শেষ করে বাসায় ফিরতে ফিরতে ভাবছিলাম এই দুনিয়ায় মানুষের উপর বিশ্বাস হারানো পাপ। কারণ, দুনিয়াতে খারাপের চেয়ে ভালো মানুষের সংখ্যাটাই বেশি।

চট্টগ্রাম শহরের আগ্রাবাদ মোড়ে মোবাইল ছিনতাই ও সেটি উদ্ধার নিয়ে লিখেছেন ভুক্তভোগী রিদওয়ান ইসলাম, শিফট ইনচার্জ, এমসিজে নিউজ ।         

সর্বশেষ

Leave a Reply